Online Education Program for EPS Workers

দক্ষিণ কোরিয়াস্থ প্রবাসী বাংলাদেশীদের অনলাইনে পড়ার সুযোগ

দক্ষিণ কোরিয়ায় অবস্থানরত ১৩,৩০০ বাংলাদেশী কর্মীদের অধিকাংশই বয়সে তরুণ এবং তাঁরা অনেকেই শিক্ষা জীবন অসমাপ্ত রেখে উন্নত জীবনের আশায় দক্ষিণ কোরিয়ায় পাড়ি জমান। এদেশে অবস্থানকালে তাদের অনেকেই কাজের পাশাপাশি লেখাপড়া চালিয়ে যেতে ইচ্ছুক। তাছাড়া, উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হলে তা ভিসার শ্রেণী পরিবর্তনের মাধ্যমে দীর্ঘ সময় দক্ষিণ কোরিয়ায় বৈধভাবে অবস্থানের ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করে থাকে।  

দক্ষিণ কোরিয়ায় বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশীদের বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ব্যাচেলর অব আর্টস (বি.এ.) –এর সনদপত্র অর্জনের সুযোগ উন্মুক্ত হয়েছে। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এম পি একটি অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই নতুন সম্ভাবনার উদ্বোধন করেন। এর ফলে দক্ষিণ কোরিয়ায় অবস্থানরত বাংলাদেশীরা বিশেষ করে ইপিএস কর্মীরা এদেশে বসেই বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে মোট ০৬(ছয়) সেমিস্টারে (প্রতি সেমিস্টারের মেয়াদ ৬ মাস) ২০(বিশ) টি কোর্স অধ্যায়নের মাধ্যমে ০৩ (তিন) বছর মেয়াদী ব্যাচেলর অফ আর্টস (বি.এ.) এর সনদপত্র অর্জনের সুযোগ লাভ করবেন। স্বল্প সময়ের জন্য দক্ষিণ কোরিয়ায় সরকারী সফরে আগত মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি এম পি ইপিএস কর্মীদের সাথে এক ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ সুযোগ লাভের দ্বার উন্মোচন করেন।

উল্লেখ যে, দক্ষিণ কোরিয়ায় অবস্থানকারী বাংলাদেশ ইপিএস কর্মীদের উচ্চশিক্ষার পথ সুগম করার লক্ষ্যে এবং বৈধ উপায়ে ভিসার শ্রেণী পরিবর্তন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ দূতাবাস, সিউল ও বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ উদ্যোগে গত ০১ এপ্রিল ২০১৯ তারিখ থেকে অনলাইনে এইচএসসি প্রোগ্রাম চালু করা হয়েছে। বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশী কর্মীদের জন্য অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম চালুর এটিই ছিল প্রথম উদ্যোগ।  

Show More
Back to top button